• শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ০২:৩৭ পূর্বাহ্ন
  • [gtranslate]

‘জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে জয় পাওয়া সহজ হবে না’

স্পোর্টস ডেস্ক : / ১৪ Time View
Update : বৃহস্পতিবার, ২ মে, ২০২৪

সবুজবাংলা২৪ডটকম, ঢাকা : আর কয়েক সপ্তাহ পরই শুরু হবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। তার আগে বাংলাদেশ দলের খুব বেশি প্রস্তুতি নেওয়ার সুযোগ নেই। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে পাঁচটি টি-টোয়েন্টির পর যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে তিনটি টি-টোয়েন্টি খেলেই বিশ্বকাপের ময়দানে নেমে যেতে হবে। শুক্রবার চট্টগ্রামে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে শুরু হচ্ছে বাংলাদেশের শেষের প্রস্তুতি! কাগজে-কলমে জিম্বাবুয়ে কঠিন কোন প্রতিপক্ষ নয়। পরিসংখানও সেটাই বলে। টি-টোয়েন্টিতে এখন পর্যন্ত ২০বার মুখোমুখি হয়েছে বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে। তার মধ্যে বাংলাদেশ ১৩টি ও জিম্বাবুয়ে ৭টিতে জিতেছে। সর্বশেষ ২০২২ সালে ৩০ অক্টোবর ব্রিসবেনে অনুষ্ঠিত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও জিম্বাবুয়েকে ৩ রানে হারায় তারা। এবারও সহজেই জিম্বাবুয়ে হারানোর কথা। কিন্তু অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত জিম্বাবুয়েকে সমীহই করছেন। শুক্রবার ম্যাচ শুরুর আগের দিন সংবাদ সম্মেলনে শান্ত বলেছেন, ‘টি-টোয়েন্টিতে বড় দল, ছোট দল নেই। আপনি যেটা বললেন, জিম্বাবুয়ে উগান্ডার কাছে হেরে গেছে। এই জিম্বাবুয়ে কিন্তু কিছুদিন আগে শ্রীলঙ্কাকেও হারিয়েছে। ওইরকম চিন্তা করলে খুব বেশি পার্থক্য মনে হয় না। এখানে ম্যাচটা কীভাবে খেলছি, কীভাবে প্রস্তুত হচ্ছি, নিজেদের আত্মবিশ্বাস কীভাবে গড়ে তুলছি…। এতটুকু বলতে পারি, সিরিজটা এত সহজ হবে না। অনেক প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ সিরিজই হবে। কারণ তারাও অনেক ভালো দল।’ জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজ জয়ের চেয়ে জরুরি বিশ্বকাপের কম্বিনেশন তৈরি করা। কোথায় দুর্বলতা আছে সেগুলো খুঁজে বের করা। অধিনায়ক শান্তর ফোকসও সেদিকেই, ‘নির্দিষ্ট করে তিন-চারটা পয়েন্টে মনোযোগ থাকবে এভাবে বলা মুশকিল। আমি চাইবো প্রত্যেকটা জায়গায় যেন ফোকাস থাকে। প্রত্যেকটা জায়গায় যেন ভালোভাবে প্রস্তুত হয়ে বিশ্বকাপে যেতে পারি।’ তবে বিশ্বকাপে যাওয়ার আগে জয়ের সুখস্মৃতি নিয়েই যেতে চান শান্ত। প্রথমে সিরিজ জয়, তারপরও অন্য কিছু। বিশ্বকাপের কম্বিনেশন করতে গিয়ে কোনোভাবেই জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে হারতেও চায় না তারা, ‘প্রথমত অধিনায়ক হিসেবে এই সিরিজটা জিততে চাই। এটাই প্রথম লক্ষ্য। আর বিশ্বকাপের প্রস্তুতি তো অবশ্যই, ওটা আমাদের মাথায় থাকবে। প্রস্তুতি নিতে গিয়ে যে আমরা খেলাটা হালকাভাবে দেখবো কিংবা অনেক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করবো তাও না। পরীক্ষা নিরীক্ষার প্রয়োজন হবে না এ কারণে যে ১৫ টা প্লেয়ার এখানে আছে, সবাই সমর্থ্য জিম্বাবুয়েকে হারানোর জন্য। আমরা ভালো প্রস্তুতি নিয়ে বিশ্বকাপে যেতে চাই।’ সাম্প্রতিক সময়ে দলকে ফিল্ডিংয়ে ভুগতে হয়েছে। এই অবস্থায় ফিল্ডিংয়ে নিজেদের উন্নতির বিকল্প দেখেন না অধিনায়ক, ‘ফিল্ডিংয়ে মিসটেক কখন হয়েছে আমার ঠিক মনে নেইৃভিন্ন ফরম্যাট। হ্যাঁ, ফিল্ডিংটা অনেক গুরুত্বপূর্ণ। প্রত্যেকটা দলেরই আসল লক্ষ্য থাকে ফিল্ডিংটা কীভাবে আরও ভালো করবো। আমাদের ফিল্ডিররা মাঠে ইনটেন্ট শো করার চেষ্টা করে এবং কারও উন্নতির দরকার হলে সেটা নিয়ে তারা কাজ করছে। এখন পর্যন্ত ফিল্ডিংয়ের দিক থেকে আমাদের এই দলটা ভালো অবস্থায় আছে।’ তীব্র গরমে জনজীবন স্থবির। এই অবস্থায় উইকেট বেশ শুষ্কই হওয়ার কথা। প্রচ- রোদে মাঠের ঘাসগুলোও শ্রীহীন হয়ে গেছে। যদিও চট্টগ্রামের ম্যাচের আগের দিন বৃষ্টি হয়েছে। তবু উইকেট ব্যাটিং সহায়ক হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি। শান্ত অবশ্য উইকেট নিয়ে ভাবতে চান না। তার বিশ্বাস চট্টগ্রামে হাইস্কোরিং ম্যাচই হবে, ‘উইকেট নিয়ে আমরা অনেক বেশি কথা বলছিলাম না, অন্য বিষয় নিয়ে কথা বলছিলাম। উইকেট নিয়ে যতটুকু কথা বলার বলেছি। কিন্তু চট্টগ্রামে সাধারণত ভালো উইকেট থাকে, অনেক রান হয়। এটা একটা ধারণা, বা আগেও হয়ে আসছে। কিন্তু ওই দিনে কত রান হবে, বা কী ধরণের স্কোর চেজ করা যাবে বা ডিফেন্ড করা যাবে; এটা ওইদিন খেলা শুরু হলে বোঝা যাবে। আশা করছি যে হাইস্কোরিং ম্যাচই হবে।’

বিজ্ঞাপন

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category

Categories