• মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৪:১৭ পূর্বাহ্ন
  • [gtranslate]

পেলের মনে জায়গা করে নিয়েছিল বাংলাদেশ

মাসুদ রানা / ১৫১ Time View
Update : শুক্রবার, ৩০ ডিসেম্বর, ২০২২

মেজর (অব) হাফিজ উদ্দিনকে বর্তমান প্রজন্ম চেনে রাজনীতিবিদ হিসেবে। মেজর হাফিজ এখন রাজনীতি নিয়ে ব্যস্ত থাকলেও ক্রীড়াবিদ হিসেবেও রয়েছে তার বিশাল ব্যপ্তি। স্বাধীনতার আগে পাকিস্তান দলে খেলা হাফিজ বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সভাপতি ছিলেন। এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশনের গণ্ডি পেরিয়ে ফিফার সাব কমিটিতেও দায়িত্ব পালন করেছেন এক দশক। সেই সময় ফুটবলের রাজা পেলের সাক্ষাৎ পেয়েছিলেন।

তিনবারের বিশ্বকাপ জয়ী পেলের সঙ্গে মেজর হাফিজের প্রথম সাক্ষাৎ ১৯৮৪ সালে। সময়ের পরিক্রমায় ৩৮ বছর পেরিয়ে গেলেও পেলের সাক্ষাতের মুহুর্তটি এখনো তাজা হাফিজের মনে, ‘সুইজারল্যান্ডের জুরিখে ফিফা কংগ্রেস ছিল। সেই কংগ্রেসে ব্রাজিলের পেলে ও ইতালির দিনো জফকে বিশেষ সম্মাননা দেয়া হয়। কংগ্রেস স্থলেই প্রথম পেলেকে দেখি। পেলেকে পেয়ে সবাই ছবি ও অটোগ্রাফের জন্য ঝাঁপিয়ে পড়েছিল।’

কংগ্রেসস্থলে ছবি ও অটোগ্রাফ নেয়ার সুযোগ পাননি হাফিজ। তার জন্য সন্ধ্যায় আরো ভালো কিছুই যে অপেক্ষা ছিল। ফিফা অতিথিদের জন্য নৌভ্রমণের ব্যবস্থা করেছিল। সেই নৌভ্রমণের মধ্যে আবার আতশবাজিও ছিল। আতশবাজির আলো আঁধারের খেলা মেজর হাফিজের পাশে বসেই উপভোগ করেন পেলে।

অন্ধকারের মধ্যেও পেলেকে ঠিকই চিনতে পেরেছিলেন হাফিজ, ‘অন্ধকার ছিল এর মধ্যেও পেলেকে ঠিকই চিনেছিলাম। তার সঙ্গে আরো দুই জন সঙ্গী ছিলেন। তারা পেলের সঙ্গে আলাপ করছিলেন।’

আতশবাজি শেষে নৌযানের আলো জ্বেলে উঠলে পেলের সঙ্গে দাঁড়িয়ে বেশ কিছুক্ষণ কথা বলেন, ‘আলো জ্বালার পর দেখি পেলে আমার পাশেই দাঁড়িয়ে। আমি একজন সাবেক ফুটবলার ও বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সভাপতি পরিচয় দিয়ে কথা বলি। তিনি বেশ আন্তরিকতার সঙ্গেই হেসে কুশল বিনিময় করেছিলেন।’


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category